You are here: Home

Articles

কোয়ানটিটি নয় কোয়ালিটি দিয়েই সর্বস্তরে শিক্ষার মানদ- নিশ্চিত করতে হবে..... উপাচার্য প্রফেসর ড. এম অহিদুজ্জামান

নোবিপ্রবি/রেজি/জনসংযোগ-০৭/২০১৬/  ১০ নভেম্বর ২০১৬


সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়
কোয়ানটিটি নয় কোয়ালিটি দিয়েই সর্বস্তরে শিক্ষার মানদ- নিশ্চিত করতে হবে

 

নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় উপাচার্য প্রফেসর ড. এম অহিদুজ্জামান বলেছেন, বিশ্ববিদ্যালয় সহ দেশের সবকটি স্তরে কোয়ানটিটি নয় বরং কোয়ালিটি দিয়েই শিক্ষার মানদ- নিশ্চিত করতে হবে। শিক্ষার মানোন্নয়নে বিদ্যমান সকল সীমাবদ্ধতাকে পেছনে ফেলে আমাদের মেধা, সামর্থ ও যোগ্যতাকে কাজে লাগিয়ে সামনে এগিয়ে যেতে হবে। আজ সোমবার (২৭ মার্চ ২০১৭) সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক ভবন-২ এর সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত ‘ওয়ার্কশপ অন ক্যারিকুলাম কনসেপ্ট, মডেল এন্ড ডেভেলপমেন্ট স্ট্র্যাটেজি’ শীর্ষক এক কর্মশালার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। শিক্ষার মানোন্নয়ন প্রকল্প ‘ইনস্টিটিউশনাল কোয়ালিটি অ্যাসুরেন্স সেল (আইকিউএসি)’ নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় শাখা দুদিনব্যাপী এ কর্মশালার আয়োজ করে।

DSC 0012

কর্মশালার শুভ উদ্ধোধন ঘোষণা করে মাননীয় উপাচার্য আরো বলেন, সংখ্যা বা কোয়ানটিটির চেয়ে মুখ্য বিষয় হচ্ছে কোয়ালিটি বা শিক্ষার গুণগত মান নিশ্চিত করা। কোয়ালিটিকেই সর্বস্তরের শিক্ষার মানদ- হিসেবে বিবেচনায় আনতে হবে। আর গুণগত শিক্ষা অর্জনের পাশাপাশি আমাদের প্রত্যেককে একজন ভালো মানুষ হবার দীক্ষা নিতে হবে। শিক্ষার সঙ্গে দীক্ষা তথা বিনয়ের সম্পর্ক না থাকলে সভ্যতার কল্যাণ সাধিত হবে না।

DSC 0023

নোবিপ্রবি ইনস্টিটিউশনাল কোয়ালিটি অ্যাসুরেন্স সেল এর পরিচালক ড. মোহাম্মদ আশরাফুল আলমের সভাপতিত্বে এতে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন‘, বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. মো. আবুল হোসেন এবং ডিরেক্টর জিটিআই, বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসর ড. এম মোজাহার আলী প্রমুখ। কর্মশালায় বক্তারা শিক্ষার মানোন্নয়নে ক্যারিকুলাম কনসেপ্ট, মডেল এন্ড ডেভেলপমেন্ট স্ট্র্যাটেজি বিষয়ে আলোচনা করেন। নোয়খালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষকবৃন্দ এতে অংশ নেয়।

নোবিপ্রবিতে বর্ণাঢ্য আয়োজনে মহান স্বাধীনতা দিবস উদযাপন


নোবিপ্রবি/জনওপ্রকা/০৩/২০১৭      ২৬ মার্চ ২০১৭


সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়

নোবিপ্রবিতে বর্ণাঢ্য আয়োজনে মহান স্বাধীনতা দিবস উদযাপন

Rally 26 March 17

 

দিনব্যাপী নানা অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে বর্ণাঢ্য আয়োজনে নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (নোবিপ্রবি) মহান স্বাধীনতা দিবস ২০১৭ উদযাপন করা হয়েছে। এ উপলক্ষে বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্যোগে আয়োজিত অনুষ্ঠানমালার মধ্যে উল্লেখযোগ্য ছিল- সমবেত জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশনের মাধ্যমে জাতীয় পতাকা উত্তোলন, র‌্যালি, উপাচার্য মহোদয়ের পুষ্পস্তবক অর্পণ, জয়বাংলা প্রীতি ম্যাচ ও পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠান। বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগ, ইনস্টিটিউট ও ছাত্রফোরামগুলো ক্রীড়া প্রতিযোগীতা ও নানা সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। এছাড়া দিবস উদযাপনে বিশ্ববিদ্যালয়ের হলগুলো শিক্ষার্থীদের জন্য বিশেষ অনুষ্ঠানমালার আয়োজন করে।

Sahid Minar 26 March 17

আজ রোববার (২৬ মার্চ ২০১৭) সকাল ৯টায় দিনের প্রথমভাগে নোবিপ্রবি পরিবারে সকল শিক্ষক-শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের অংশগ্রহণে বিশ্ববিদ্যালয়ের গোল চত্ত্বরে মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি ভাস্কর্যের সামনে সমবেত জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশনের মাধ্যমে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়। পরে মাননীয় উপাচার্য প্রফেসর ড. এম অহিদুজ্জামানের নেতৃত্বে সকলের অংশগ্রহণে স্বাধীনতা দিবসের র‌্যালি অনুষ্ঠিত হয়। র‌্যালিটি প্রশাসনিক ভবনের সামনে থেকে শুরু হয়ে বিশ্ববিদ্যালয় এবং এলাকাভিত্তিক নানা সংগঠন ও পরিষদের পক্ষ থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার ও বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে শেষ হয়। সেখানে সংক্ষিপ্ত বক্তৃতায় উপাচার্য প্রফেসর ড. এম অহিদুজ্জামান মহান স্বাধীনতা দিবসের মাহাত্ম্য ও গুরুত্ব তুলে ধরেন।

Mural 26 March 17

 

বক্তৃতায় উপাচার্য স্বাধীনতার চেতনায় উজ্জীবিত হয়ে একজন নিবেদিতপ্রাণ দেশকর্মী হিসেবে নোবিপ্রবি পরিবারের সকলকে দেশসেবায় ব্রতী হওয়ার আহ্বান জানান। এসময় উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. মো. আবুল হোসেন, অনুষদসমুহের ডিন, রেজিস্ট্রার, ইনস্টিটিউট ও দপ্তরসমুহের পরিচালক, বিভিন্ন বিভাগের চেয়ারম্যানবৃন্দ, হলের প্রভোস্টবৃন্দ, প্রক্টর, শিক্ষক সমিতির নেতৃবৃন্দ, বঙ্গবন্ধু পরিষদ ও স্বাধীনতা শিক্ষক পরিষদের আহ্বায়কবৃন্দ, নোবিপ্রবি অফিসার্স এসোসিয়েশনের নেতৃবৃন্দ এবং ছাত্র-শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

puroskar 26 march 17

পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় খেলার মাঠে স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে আয়োজিত “জয় বাংলা প্রীতি ম্যাচ’ এর উদ্বোধন ও বিজয়ীদের মাঝে পুরষ্কার বিতরণ করেন উপাচার্য প্রফেসর ড. এম অহিদুজ্জামান। এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন রেজিস্ট্রার প্রফেসর মো. মমিনুল হক ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজ বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ও সিনেট সদস্য প্রখ্যাত সমাজ বিজ্ঞানী প্রফেসর ড. জিনাত হুদা অহিদ এবং নোবিপ্রবি শিক্ষক সমিতির সভাপতি প্রফেসর ড. মোহাম্মদ ইউছুফ মিঞা প্রমুখ। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন ছাত্র পরামর্শ ও নির্দেশনা পরিচালক জনাব আফসানা মৌসুমী।

নতুন প্রজন্মকে তথ্য প্রযুক্তির জ্ঞান ও দক্ষতা দিয়ে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা প্রতিষ্ঠা করবো আমারা -উপাচার্য

নোবিপ্রবি/জনওপ্রকা/০৩/২০১৭  ১৯ মার্চ  ২০১৭


সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়
নতুন প্রজন্মকে তথ্য প্রযুক্তির জ্ঞান ও দক্ষতা দিয়ে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা প্রতিষ্ঠা করবো আমারা -উপাচার্য

2

আজকের তরুণ শিক্ষার্থীদের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ে যথাযথ জ্ঞান ও দক্ষতা প্রদানের মাধ্যমে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের সোনার বাংলা প্রতিষ্ঠা করার প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (নোবিপ্রবি) মাননীয় উপাচার্য প্রফেসর ড. এম অহিদুজ্জামান। আজ রোববার সকালে (১৯ মার্চ ২০১৭) বাংলাদেশ সরকারের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের উদ্যোগে ও নোবিপ্রবি কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড টেলিকমিউনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারিং অনুষদের সহায়তায় অনুষ্ঠিত ‘জাতীয় হাই স্কুল প্রোগ্রামিং কনটেস্ট ২০১৭’ এর আঞ্চলিক পর্বের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপাচার্য এ কথা বলেন।

4

বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় খেলার মাঠে আয়োজিত ওই অনুষ্ঠানে আগত শিশু-তরুণদের উদ্দেশ্যে তিনি আরো বলেন, মার্চ মাসে জাতির পিতার জন্ম এবং এ মাসেই আমারা পেয়েছি আমাদের স্বাধীনতা। ১৯৭১ সালের ৭ই মার্চ বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ভাষনের মাধ্যমে আমরা পেয়েছি স্বাধীনতা শব্দ আর ২৬ মার্চ আনুষ্ঠানিক ঘোষণার মাধ্যমে পেয়েছি বাংলাদেশ নামক শব্দ ও স্বাধীন বাংলাদেশ। বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যা দেশরত্ন শেখ হাসিনা ডিজিটাল বাংলা তথা উন্নত আত্মমর্যাদাশীল বাংলাদেশ নির্মাণে কাজ করছেন। প্রধানমন্ত্রীর এই কাজে সহায়তা করছেন বিশিষ্ট বিজ্ঞানী এবং তার তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়। সজীব ওয়াজেদ জয়ের নেতৃত্বে বর্তমানে ডিজিটাল বাংলাদেশের সফল বাস্তবায়ন চলছে। আজকের ‘জাতীয় হাই স্কুল প্রোগ্রামিং কনটেস্ট ২০১৭’ তারই অংশ।

3

প্রতিযোগী শিক্ষার্থীদের অভিনন্দন জানিয়ে তিনি আরো বলেন, সজীব ওয়াজেদ জয়ের ভিশন হচ্ছে দেশের তরুণ শিশু-কিশোরদের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তিতে দক্ষ করে গড়ে তোলা। এখানে উপস্থিত ক্ষুদে শিক্ষার্থী তোমরা সে ভিশন বাস্তবে রুপদান করবে। তোমাদের হাত ধরে সজীব ওয়াজেদ জয়ের নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা আমরা প্রতিষ্ঠা করবো।

1

সকালে এ কার্যক্রম উদ্বোধনের পর হাজী মোহাম্মদ ইদ্রিছ অডিটোরিয়াম ও একাডেমিক ভবন-১ এর ল্যাব রুমে ‘কুইজ ও প্রোগ্রামিং কনটেস্ট’ এর মূল প্রতিযোগীতা অনুষ্ঠিত হয়। এতে জেলার বিভিন্ন বিদ্যালয় ও কলেজের ১ হাজার ১০৬ জন প্রতিযোগী অংশ নেয়। এর মধ্যে ১ হাজার ৫৪ জন কুইজ পর্বে এবং বাকি ৫২ জন প্রোগ্রামিং পর্বে অংশগ্রহণ করে। উভয় পর্ব থেকে ৭০ জন জাতীয় পর্যায়ের প্রতিযোগিতার জন্য নির্বাচিত হয়। দুপুরে হাজী মোহাম্মদ ইদ্রিছ অডিটোরিয়ামে বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে প্রতিযোগীদের মাঝে সনদ, টি-শার্ট ও মেডেল বিতরণ করেন উপাচার্য। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড টেলিকমিউনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ হুমায়ূন কবীর। অন্যদের মাঝে ইনস্টিটিউটের পরিচালকবৃন্দ, বিভিন্ন বিভাগের চেয়ারম্যানবৃন্দ, কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড টেলিকমিউনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের শিক্ষকবৃন্দ, ইনফরমেশন এন্ড টেলিকমিউনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের শিক্ষকবৃন্দ, প্রক্টর, ছাত্র-শিক্ষক ও প্রতিযোগী শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।

 

নোবিপ্রবিতে গণহত্যা দিবসের আলোকচিত্র প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত


নোবিপ্রবি/জনওপ্রকা/০৩/২০১৭            ২৫ মার্চ ২০১৭


সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়
নোবিপ্রবিতে গণহত্যা দিবসের আলোকচিত্র প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত

 DSC 0546

নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (নোবিপ্রবি) প্রথমবারের মতো জাতীয় গণহত্যা দিবস পালিত হয়েছে। এ উপলক্ষে আজ শনিবার (২৫ মার্চ ২০১৭) বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার প্রাঙ্গনে আলোকচিত্র প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় উপাচার্য প্রফেসর ড. এম অহিদুজ্জামান আজ বিকেলে ওই প্রদর্শনী ঘুরে দেখেন। এসময় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট সদস্য ও সমাজ বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক প্রখ্যাত সমাজ বিজ্ঞানী প্রফেসর ড. জিনাত হুদা অহিদ, নোবিপ্রবি ইনস্টিটিউট অব ইনফরমেশন টেকনোলজি (আইআইটি) এর পরিচালক মোহাম্মদ নুরুজ্জামান ভূঁইয়া এবং প্রক্টর মুহাম্মদ মুশফিকুর রহমান সহ শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।

নোবিপ্রবিতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মদিন ও জাতীয় শিশু দিবস উদ্যাপন

নোবিপ্রবি/জনওপ্রকা/০৩/২০১৭      ১৭ মার্চ  ২০১৭


সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়
নোবিপ্রবিতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মদিন ও জাতীয় শিশু দিবস উদ্যাপন

17 March 317 March 417 March 1

নানা কর্মসূচীর মধ্য দিয়ে নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (নোবিপ্রবি) জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মদিন ও জাতীয় শিশু দিবস ২০১৭ উদ্যাপন করা হয়েছে। কর্মসূচীসমূহের মধ্যে উল্লেখযোগ্য ছিল- ক্যাম্পাসে র‌্যালি, বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন, কেক কাটা ও চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতার আয়োজন এবং প্রামাণ্য ও চলচ্চিত্র প্রদর্শনী, আবৃত্তি, গান, আলোচনা সভা ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠান। এদিন (১৭ মার্চ ২০১৭) সকাল ৯টায় বিশ্ববিদ্যালয় প্রাঙ্গনে বর্ণাঢ্য এক র‌্যালি অনুষ্ঠিত হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় উপাচার্য প্রফেসর ড. এম অহিদুজ্জামানের নেতৃত্বে র‌্যালিটি ক্যাম্পাসের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদনের মাধ্যমে শেষ হয়। এসময় বিভিন্ন অনুষদসমূহের ডিন, রেজিস্ট্রার, ইনস্টিটিউটের পরিচালকবৃন্দ, বিভিন্ন বিভাগের চেয়ারম্যানবৃন্দ, হলের প্রভোস্টবৃন্দ, প্রক্টর, ছাত্র নির্দেশনা পরিচালক, শিক্ষক সমিতি ও অফিসার্স এসোসিয়েশনের নেতৃবৃন্দ, দপ্তর প্রধানবৃন্দ এবং ছাত্র-শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। পরে উপাচার্যের সম্মেলন কক্ষে কেক কেটে বঙ্গবন্ধুর শুভ জন্মদিন ঘোষণা করেন উপাচার্য প্রফেসর ড. এম অহিদুজ্জামান। এরপর হাজী মোহাম্মদ ইদ্রিছ অডিটোরিয়ামে আয়োজিত চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা, বঙ্গবন্ধুর ভাষণ, কবিতা আবৃত্তি, গান ও চলচ্চিত্র প্রদর্শনীর উদ্ধোধন করেন তিনি। এসব প্রতিযোগিতায় পার্শ্ববর্তী এলাকার বিদ্যায়লয়গুলোর শিশু-কিশোররা অংশ নেয়। অনুষ্ঠানে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা আবৃত্তি ও গান পরিবেশন করেন। ‘আমার সোনার বাংলা’ এবং ‘বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধ’ এ দুটি বিষয়ের উপর অনুষ্ঠিত চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় ১ম থেকে ৮ম শ্রেণীর শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করে। বেলা ১২টায় সভাপতি হিসেবে উপস্থিত থেকে উক্ত প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন উপাচার্য। সেখানে সংক্ষিপ্ত এক বক্তৃতায় উপাচার্য প্রফেসর ড. এম অহিদুজ্জমান বলেন, বাংলাদেশের অপর নাম, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। এসময় তিনি বাংলার প্রতিটি ঘরে ঘরে যেন মুজিবের আদর্শে প্রত্যেক শিশু বেড়ে ওঠে সে বিষয়ে সবার সচেতনতার ওপর জোর দেন। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন ছাত্র পরামর্শ ও নির্দেশনা পরিচালক জনাব আফসানা মৌসুমী।

এদিকে দিবসটি উদ্যাপনে ভাষা শহীদ আবদুস সালাম হল ও হযরত বিবি খাদিজা হল কর্তৃপক্ষ পৃথকভাবে কেক কাটা, বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে শ্রদ্ধার্ঘ নিবেদন, ক্রীড়া প্রতিযোগিতা, আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে আয়োজিত উক্ত অনুষ্ঠানসমূহে হল দুটির প্রভোস্ট প্রফেসর ড. মোহাম্মদ ইউছুফ মিঞা ও ড. মুহাম্মদ শফিকুল ইসলাম সহ অন্যান্য সহকারী প্রভোস্টবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

Latest News

Noakhali Science And Technology University, Sonapur, Noakhali-3814